বাবাকে নাজেহালের চেষ্টা, এলাকাবাসী পিটুনি দিয়ে পুলিশে দিল নায়ক যুবরাজ কে

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় বৃদ্ধ বাবাকে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে এলাকাবাসী চলচ্চিত্র অভিনেতা মাহফুজুর রহমান যুবরাজ (৩২) ও তাঁর দুই সহযোগীকে পিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে। এ ঘটনায় বৃদ্ধ বাবা শ্রীপুর মডেল থানায় তাঁর ছেলেসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।

গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন শ্রীপুর উপজেলার মাইজপাড়া গ্রামের আমিনুর রহমান সাহিদের ছেলে মাহফুজুর রহমান যুবরাজ, কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলার হাবিবুর রহমান হাবিব ও শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার রতন। যুবরাজ ‘আদরের জামাই’ চলচ্চিত্রে পার্শ্ব অভিনেতা হিসেবে অভিনয় করেছেন। শাহাদৎ হোসেন লিটন পরিচালিত ওই চলচ্চিত্রে মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস।

শ্রীপুর মডেল থানার দায়িত্বরত কর্মকর্তা (এসআই) মাহমুদুল হাসান মামলার বরাত দিয়ে জানান, শ্রীপুর উপজেলার মাইজপাড়া গ্রামের আমিনুর রহমান সাহিদের ছেলে চলচ্চিত্রের পার্শ্ব-অভিনেতা যুবরাজ এর আগে বিভিন্ন সময় ব্যবসার কথা বলে বাবার কাছে টাকা দাবি করেন। আমিনুর রহমান জমি বিক্রি করে এরই মধ্যে প্রায় ৮০ লাখ টাকা ছেলেকে দেন। গত কয়েকদিন ধরে যুবরাজ তাঁর বাবার কাছে আরো ৫০ লাখ টাকা দাবি করেন। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে যুবরাজ তাঁর বাবাকে লাঞ্ছিত করেন ও ভয়ভীতি দেখান। গতকাল সোমবার দুপুরে কয়েকজন সহযোগী নিয়ে যুবরাজ বরমী বাজার এলাকায় অবস্থিত তাঁদের বাড়িতে যান এবং বাবা সাহিদকে একটি ঘরে আটকে মারপিট করতে উদ্ধত হন। এ সময় সাহিদের চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে যুবরাজ এবং তাঁর সহযোগী হাবিব ও রতনকে আটক করে পিটুনি দেন। পরে তাঁদের স্থানীয় বরমী ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) আটকে রাখে।