হাটহাজারীতে বিয়ের ৮ দিনের মাথায় চিকিৎসকের আত্নহত্যা !

মোঃআলাউদ্দীন -হাটহাজারীতে ২য় বিয়ের মাত্র আট দিনের মাথায় সরওয়ার হোসেন(৪২) নামেরএক পল্লী চিকিৎসক বাসার সিলিং ফ্যানের সাথে ফাস লাগিয়ে আআত্নহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। ২১ আগষ্ট সোমবার সকালে পৌরসভার নুর মসজিদের দক্ষিন পার্শ্বে পল্লী চিকিসক গোলাম হোসেনের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।  স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, হাটহাজারী সদরের কালী বাড়ীর দক্ষিনে ফয়জিয়া ফার্মাসীর মালিক পল্লী চিকিৎসক গোলাম হোসেনের পুত্র সরওয়ার নিজ বাসায় প্রতিদিনের মতো রাতে শয়ন কক্ষে ঘুমাতে যায়। সকালে সরওয়ারকে নাস্তা করার জন্য ডাকতে গেলে সিলিং ফ্যানের সাথে ফাস লাগানো অবস্থায় ঝুলতে দেখে পরিবারের সদস্যরা পুলিশকে খবর দিলে ওসি তদন্ত কামাল হোসেন তার সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থা থেকে লাশ উদ্ধার করে। লাশের পাশে একটা সুইসাইড নোট পাওয়া যায়। যেখানে লিখা ছিলো, ”আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়,এটা আমার নিজের হাতের লিখা। কাউকে থানায় নিবেন না। আমার বাবা,মা অসুস্থ,কারো কোনো দোষ নেই। আমাকে মাফ করে দিবেন।”   সুরতহাল রিপোট তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরন করে।  জানা যায়, আত্নহননকারী  সরওয়ার প্রথম বিবাহ বিচ্ছেদের পর গত ১৩ আগষ্ট রবিবার মাত্র ৮ দিন পূর্বে দ্বিতীয় বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন।

মডেল থানা পুলিশের ওসি বেলাল উদ্দীন জাহাঙ্গীর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,ঘটনাটি হত্যাকান্ড নাকি আআত্নহত্যা তা তদন্ত করা হচ্ছে। ময়না তদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলে এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যাবে। আপাতত মডেল থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।