দীর্ঘ মেয়াদে রোহিঙ্গা সংকট বাংলাদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলবে

দীর্ঘ মেয়াদে রোহিঙ্গা সংকট বাংলাদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে প্রভাব ফেলবে বলে মনে করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা ব্লুম বার্নিকাট। সেই সঙ্গে বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগ বাড়াতে আমলাতান্ত্রিক জটিলতা ও দীর্ঘসূত্রতা কমানোর ওপর জোর দিয়েছেন তিনি।

সোমবার আমেরিকান চেম্বার অব কমার্স ইন বাংলাদেশ (অ্যামচেম) আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন বার্নিকাট।

মার্কিন এই দূতের মতে, রোহিঙ্গা ইস্যু বাংলাদেশের অর্থনীতির ওপর প্রভাব ফেলবে। ফলে এর প্রভাব পড়বে বিনিয়োগেও।

একক দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে বড় বিনিয়োগকারী দেশ উল্লেখ করে মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন, এ দেশে যুক্তরাষ্ট্রের আরো বিনিয়োগের জন্য যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। কিন্তু সেটার জন্য প্রয়োজন সহায়ক স্বচ্ছ ও সমান সুযোগ নিশ্চিত করা। অহেতুক কর বসানো এবং দুর্নীতির কারণে বিনিয়োগের পরিবেশ নষ্ট হয় বলে মতো দেন তিনি।

মার্শা বার্নিকাট বলেন, ‘আমাদের দূতাবাসের অনেক কর্মীই বাংলাদেশে বিনিয়োগ নিয়ে কাজ করছেন। কিন্তু এটা বিরক্তিকর বিষয় যদি এসব কর্মীকে প্রায় প্রতিদিনই এমন সব কাজে নিয়োজিত রাখতে হয় যা এমনি এমনি হয়ে যাওয়ার কথা। আমি একজন আমলা। আমি কখনোই বলতে চাই না যে আমলাতন্ত্র একটি সমস্যা। কিন্তু বাণিজ্য সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে যা এরই মধ্যে চুক্তি হয়ে গেছে সেগুলো বাস্তবায়ন করার জন্যও যদি আমাদের কর্মীদের ব্যস্ত থাকতে হয় তবে এটা সময় নষ্ট। আমরা এভাবে সময় নষ্ট না করে বরং সময় দিতে চাই নতুন বিনিয়োগকারী খুঁজতে। নতুন সুযোগ খুঁজতে।’

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অ্যামচেমের প্রেসিডেন্ট নুরুল ইসলামসহ অন্যরা।