ঢাকা ফেরার পথে আবারও খালেদা জিয়ার গাড়ী বহরে হামলা

ফেনীতে এবার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহরের পেছনে হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলার পর দুটি বাসে আগুন ধরে যায়।

আজ মঙ্গলবার বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটে ফেনীর মহীপালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ শেষে সড়কপথে ঢাকায় ফিরছিলেন খালেদা জিয়া।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, খালেদা জিয়ার গাড়ি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর মহীপাল অতিক্রম করার পরপরই বহরের গাড়ি লক্ষ্য করে কয়েকটি ককটেল নিক্ষেপ করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় যাত্রীবাহী দুটি বাসে আগুন ধরে যায়। তবে এতে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। খালেদা জিয়াকে অভ্যর্থনা জানাতে আসা অপেক্ষমাণ বিএনপি-যুবদল ও ছাত্রদল নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা ও ইট-পাটকেল নিয়ে এগিয়ে গেলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়।বিএনপির চেয়ারপারসনের গণমাধ্যম শাখার কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান  জানান, গাড়িবহরের পেছনের দিকে হামলা চালানো হয়। বিকেলে ঢাকায় ফেরার পথে বোমা হামলা, ভাঙচুর ও গোলযোগ সৃষ্টি করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় দুটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। তবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মহীপালের রাস্তার দুই পাশে যানজট প্রকট আকার ধারণ করে।

যুবদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু সাংবাদিকদের জানান, খালেদা জিয়ার গাড়িকে লক্ষ্য করেই হামলার চেষ্টা করে। হামলাকারীদের নিক্ষেপ করা ককটেল দুটি বাসে পড়লে আগুন ধরে যায়।

এর আগে গত ২৮ অক্টোবর বিকেলে কক্সবাজার যাওয়ার পথে ফেনীতেই হামলার শিকার হয় খালেদা জিয়ার গাড়িবহর। ফেনী শহরের কাছে ফতেপুরে মোহাম্মদ আল বাজার পার হওয়ার সময় দুর্বৃত্তরা গণমাধ্যমের গাড়িসহ ১৫-১৬টি গাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করে। হামলায় ১১ জন সাংবাদিকসহ বিএনপির বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন।