কোলকাতার বিপক্ষে দিল্লির ৫৫ রানের জয়

  • দিল্লির অধিনায়কত্ব ছাড়লেন গৌতম গম্ভীর আর ভাগ্য যেন ফিরে এল দিল্লি ডেয়ার ডেভিলসের। আইপিএল এ টানা কয়েকটি ম্যাচ হারার পর অবশেষে জয় পেল দিল্লি। নতুন অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ারের নেতৃত্বে অন্য এক দলকে দেখল ফিরোজ শাহ কোটলার দর্শকরা।

    এবারের আইপিএলে সর্বোচ্চ রানও তুলেছিল দিল্লির ব্যাটসম্যানেরা। টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে কেকেআরের সামনে বিশাল ২২০ রানের লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দেয় স্বাগতিকরা।

    এই মঞ্চটার জন্যই যেন অপেক্ষা করছিলেন দিল্লির নতুন অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার। গৌতম গম্ভীরের ছেড়ে যাওয়া জায়গায় বসেই অধিনায়কোচিত ইনিংস খেলেন শ্রেয়াস। ৪০ বলে ৯৩ রানের ইনিংস উপহার দেন তিনি। গোটা ইনিংসে মারেন ৩টে চার এবং ১০টা ছয়। স্ট্রাইক রেট ২৩২.৫০। দিল্লি ইনিংসের শেষ ওভারে অধিনায়কের ব্যাটে উঠে ২৯ রান।

    শুধু শ্রেয়াসই নন আজ দিল্লির প্রত্যেকটা ব্যাটসম্যানই ঝ়ড় তোলেন ব্যাটে। উদ্বোধনী জুটিতে কলিন মুনরো ১৮ বলে ৩৩ করে ফিরলেও নিজের খেলা চালিয়ে যান পৃথ্বী। ৭টা চার, ২টো ছয় সহ ৪৪ বলে ৬২ রান করে আউট হন তিনি।

    কেকেআরের কোনও বোলারকেই পাত্তা করেননি শ্রেয়স-পৃথ্বী। শিভম মাভি প্রথম দুই ওভারে দিয়েছিলেন ১১ রান, ৪ ওভার শেষে সেটা গিয়ে দাঁড়াল ৫৮ রানে। মার খেয়েছেন মিচেল জনসন, সুনীল নারিনও। শেষ পর্যন্ত দিল্লির ইনিংস শেষ হয় ২১৯ রানে।
    ২২০ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই ছন্দপতন হয় কেকেআরের। পাওয়ার-প্লে শেষ হওয়ার আগেই চার উইকেট হারাতে হয় কার্তিকের দলকে। ১০ ওভার শেষে কেকেআরের রান পাঁচ উইকেটে ৮৩। এরপর আন্দ্রে রাসেল ঝর তুললেও শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৬৪ রান তুলতে পারে কেকেআর। রাসেল ৩০ বলে ৪৪ রান সংগ্রহ করেন। দিল্লির হয়ে ট্রেন্ট বোল্ট, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ২টি করে উইকেট লাভ করেন।
    এই জয়ে দিল্লি পয়েন্ট টেবিলের ৭ম স্থানে উঠে এল।