বিপিএলে প্রথম হাজারি ক্লাবে মুশফিক

আর মাত্র ৫ রান হলেই নতুন মাইলফলক। এমন সমীকরণ নিয়েই সোমবার মাঠে নেমেছিলেন বরিশাল বুলসের অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। আর তা করে দেখালেন এ ব্যাটসম্যান। প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) এক হাজারী ক্লাবে পৌঁছেছেন তিনি। সোমবার চিটাগাং ভাইকিংসের বিপক্ষে ম্যাচে এ মাইলফলকে পৌঁছান দেশসেরা এ ব্যাটসম্যান।

বিপিএল এলেই যেন আরও বদলে যান মুশফিক। বরাবরই ব্যাট হাতে সবচেয়ে সফল থাকেন এ ব্যাটসম্যান। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। এবারের আসরেও এখন পর্যন্ত প্রথম দ্বিতীয় সেরা ব্যাটসম্যান এ মুশফিকই। তার সামনে আছেন রয়েছেন কেবল সতীর্থ শাহরিয়ার নাফীস। চার ম্যাচে ১৭৪ রান করেছেন তিনি।

এদিন শেষ ওভারে ব্যাটিংয়ে নামেন মুশফিক। তখন দলের জন্যব প্রয়োজন ৭ রান। এর আগে এমন সমীকরণে বিপিএলে তিনটি ম্যাচে হেরেছে ব্যাটিং দলই। তবে এবার সে জুজু আর হতে দেননি মুশফিক। চার বলেই দলের জয় নিশ্চিত করেন তিনি। আর ব্যাটিংয়ে নেমে নিজের দ্বিতীয় বল মোকাবেলা করে চার মেরে হাজারী ক্লাবে পৌঁছান মুশফিক। এর এক বল পর পরের বলে আরও একটি চার মেরে নিশ্চিত করেন দলের জয়। শেষ পর্যন্ত ১০ রানে অপরাজিত থেকেন তিনি।

বিপিএলে মুশফিকের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান ৮৬। এ পর্যন্ত খেলেছেন ৩৮টি ম্যাচ। সব মিলিয়ে বিপিএলে তার রান সর্বোচ্চ ১০০৫ রান। আগের তিন আসরেও সব মিলিয়ে ছিলেন সবার ওপরে।

মুশফিকের পরই রয়েছেন জাতীয় দলের সতীর্থ সাকিব আল হাসান। তবে রানের ক্ষেত্রে পিছিয়ে আছেন প্রায় ২২৫ রান। সংখ্যাটা দিন শেষে হয়তো আরও বড় হতে পারে। ৩৭ ম্যাচ খেলে সাকিবের সংগ্রহ ৭৭৫। তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন এনামুল হক বিজয়। তার সংগ্রহ ৪০ ম্যাচে ৭৬২।

আর চতুর্থ অবস্থানে রয়েছেন একজন বিদেশি। অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান ব্র্যাড হজ। ২৩ ম্যাচ খেলে করেছেন ৭৫৬ রান। রান সংগ্রহের দিক থেকে পঞ্চম অবস্থানে রয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৪১ ম্যাচ খেলে তার রান ৭৪৩।

নামম্যাচইনিংসরানসর্বোচ্চস্ট্রাইক রেটহা.সে./সে.
মুশফিকুর রহীম৩৮৩৪১০০৫৮৬১২৯.২২৭/০
সাকিব আল হাসান৩৭৩৭৭৭৫৮৬*১৩৬.৯২৩/০
এনামুল হক বিজয়৪০৩৬৭৬২৮৩১১৯.৬২৩/০
ব্র্যাড হজ২৩২২৭৫৬৭০*১৩৩.৮০৭/০
মাহমুদউল্লাহ৪১৩৭৭৪৩৫৬*১০৮.৬২৩/০