বিসিবিতে জরুরি বৈঠক নেই সাকিব

আসন্ন ভারত সফরকে সামনে রেখে অনুশীলনে ঘাম ঝরাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। চূড়ান্ত প্রস্তুতি হিসেবে দুদলে ভাগ হয়ে খেলেছেন দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচও। যেখানে অনুপস্থিত খোদ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। যা নিয়ে সংশয় ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। ধর্মঘটের নেতৃত্ব দেয়া, গ্রামীণফোনের সাথে চুক্তি, অনুশীলনে যোগ না দেয়া, বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের সাথে একান্ত রুদ্ধদ্বার বৈঠক, প্রস্তুতি ম্যাচ না খেলা সাকিবের এসব ঘটনা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠে আসছে।

এরকম কিছু কিছু প্রশ্নের জন্ম দিয়েছেন স্বয়ং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। তিনি বলেন, মেঘ এখনও কাটেনি। ভারত সফরে শুধু তামিম নন। আরও কিছু ক্রিকেটার নাও যেতে পারে। ভারতের মাটিতে টি-২০ এবং টেস্ট সিরিজ থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করে নিতে পারেন দলীয় অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

যে কারণে স্বভাবতই সাকিবসহ সিনিয়র ক্রিকেটাদের নিয়ে আবারও এক টেবিলে বসতে হয়েছে বোর্ড কর্তাদের। সোমবার (২৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মিরপুরের বিসিবি কার্যালয়েই জরুরী এ বৈঠকে বসেছে উভয়পক্ষ।

এদিকে সন্ধ্যা ৬টায় ফ্লাড লাইটের আলোয় শুরু হয় দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচটি। লাল দল আর সবুজ দলের মধ্যে ভাগ হয়ে এই ম্যাচটিও খেলছেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররাই। ওই ম্যাচ শুরুর এক ঘণ্টারও কম সময় আগে ক্রিকেটারদের নিজের কাছে ডেকে নিলেন বিসিবি সভাপতি। এরপরই সাকিবের বিষয়ে বৈঠকে বসেন বিসিবি কর্মকর্তারা।