আংশিক খুলছে ডিএনসিসি মার্কেট

অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্থ গুলশান ডিএনসিসি মার্কেটের বেশ কয়েকটি দোকান খুলেছে। শুক্রবার জুম্মা নামাজ শেষে দোয়া-মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দোকান চালু করেন ব্যবসায়ীরা।

পাকা মার্কেটের পুড়ে যাওয়া দোকানে চলছে ধোয়ামোছা ও নতুন করে ডেকোরেশনের কাজ। তবে ধসে পড়া কাঁচা বাজার মার্কেট খুলতে সময় লাগবে বলে জানিয়েছে ব্যবসায়িরা।

সন্ধ্যায় সরেজমিনে দেখা যায়, অধিকাংশ দোকানেই চলছে ডেকোরেশন ও ধোয়ামোছার কাজ। মার্কেটের সামনের অংশের কিছু দোকান চালু হয়েছে। জেনারেটরের মাধ্যমে করা হয়েছে আলোর ব্যবস্থা। তবে কাঁচা বাজারের পাশে থাকা দোকানগুলো খোলেনি।

সাইনপুকুর সিরামিক্সের ব্যবসায়ী আলি আকবর জানান, দুপুরেই দোকান খুলেছি। ক্রেতাও আসলেও প্যাকিং সমস্যার কারণে বিক্রি করা যায়নি। তবে কাল নাগাদ বিক্রি শুরু হবে।

মিয়াকো ইলেক্ট্রনিক্সের বিক্রেতা আব্দুল খালেক জানান, মার্কেটের নিচতলার দক্ষিণ পাশের দোকানগুলো বেশি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। পুরো দোকান পুড়ে গেছে। এখন নতুন করে ডেকোরেশনের কাজ চলছে।

ডিএনসিসি পাকা মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি তালাল রিজভী জানান, শুক্রবার আনুষ্ঠিকভাবে দোকানপাট চালু করা হয়েছে। তবে মার্কেটে বিদ্যুতের সংযোগ নেই। সিটি কর্পোরেশন দ্রুত সংযোগ দেবে বলে মেয়র আশ্বাস দিয়েছেন।

ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, শনিবার বৈঠক হবে। বৈঠকে   কার কেমন ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সেটি আলোচনা  হবে। পরে ক্ষতির পরিমাণ নিরুপণ করা হবে।