ঘরোয়া মৌসুম শুরু হওয়ার আগে ক্রিকেটারদের টিকা দেওয়া হবে

নতুন ঘরোয়া মৌসুম শুরু হওয়ার আগে ক্রিকেটারদের টিকা দেওয়ার কথা ভাবছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী সংবাদমাধ্যমকে এমনটা জানিয়েছেন।

গত বছর করোনাভাইরাসের কারণে ঘরোয়া আসরগুলো আয়োজন করতে পারেনি বিসিবি। পরে গত বছরের শেষ দিকে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপ ও বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ আয়োজন করে। জৈব-সুরক্ষা বলয়ে ম্যাচগুলো আয়োজন হয়েছিল।

প্রেসিডেন্টস কাপে তিনটি দল ছিল এবং পাঁচটি দল নিয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ আয়োজন করা হয়। তবে আরও অনেক দল ছিল যারা ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ বা জাতীয় ক্রিকেট লিগে অংশ নিয়েছিল এবং মহামারির সময় অনেক ক্রিকেটারকে দিয়ে খেলানো কঠিন ছিল।

নিজামউদ্দিন চৌধুরী এ ব্যাপারে বলেন, ‘আমরা যত বেশি সম্ভব ক্রিকেটারকে টিকা দেওয়ার চেষ্টা করছি। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়কে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় একটি চিঠি দিয়েছে। আমরা তাদের জবাবের অপেক্ষায় আছি।’

ঘরোয়া ক্রিকেটের নতুন মৌসুম এপ্রিলে শুরু হতে পারে। তবে বোর্ড দিনক্ষণ চূড়ান্ত করেনি। জাতীয় ক্রিকেট দলের বেশিরভাগ সদস্য এরই মধ্যে টিকা নিয়েছেন। তারা তিন ম্যাচের ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য নিউজিল্যান্ড সফরে আছেন।

নিউজিল্যান্ড সিরিজের পর টাইগাররা শ্রীলঙ্কায় দুটি ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলতে যাবে যা বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ। যদিও এই সিরিজটি ফাইনালের লাইনআপে কোনো পরিবর্তন আনবে না। কারণ ভারত ও নিউজিল্যান্ড এরই মধ্যে ফাইনালে উঠেছে।

শ্রীলঙ্কা সফর সম্পর্কে নিজামউদ্দিন বলেন, ‘বাংলাদেশ ক্রিকেট দল কলম্বোতে থাকবে, টেস্ট দুটি একই ভেন্যুতে হবে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ১২ এপ্রিল শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে রওনা হতে পারে এবং সেখানে পৌঁছানোর পর তাদের এক সপ্তাহ কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে।’

টেস্ট সিরিজ শেষে শ্রীলঙ্কা মে মাসে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের জন্য বাংলাদেশ সফর করবে। ২০ মে শ্রীলঙ্কা দল বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার কথা।